হোম আমাদের সম্পর্কে

আমাদের সম্পর্কে

 

প্রায় তিন দশক ধরে, বাংলার ঘরে ঘরে রেমি কসমেটিক্স এক আলােচিত নাম । অধ্যাপক ডাঃ এম সরকার এর সফল আবিষ্কার রেমি  স্পট  ক্লিনার ক্রীম । বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই ব্যক্তিত্বের হাত ধরে ১৯৮৮ সালে যে বীজ অঙ্কুরিত হয়েছিল তা আজ এক মহীরুহতে পরিণত হয়েছে । উৎপাদনের বিভিন্ন পর্যায়ে অথাং কাঁচামাল সংগ্রহে থেকে শুরু করে গবেষণা, উৎপাদন, মান নিয়ন্ত্রন ও বাজারজাত করণের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের দক্ষতা এবং একাত্বতা রেমি ব্রান্ডকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে ৷ বিশেষ করে উৎপাদন বিভাগে নিয়োজিত আছেন অভিজ্ঞ কেমিস্ট এবং ফার্মাসিন্টের সমন্বয়ে গঠিত একটি দক্ষ দল যারা নিরবিছন্ন ভাবে  পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণ করছেন ।  আমাদের রয়েছে R&D বিভাগ য়৷রা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভারত) কারিগরী সহযোগীতা নিয়ে প্রতিনিয়ত আরো অধিক দ্বক্রিয় এবং মান  সম্পন্ন পণ্য উদ্ভ৷বনে নিয়োজিত
আছেন । উৎপাদনে পণ্য সঠিকভাবে বাজারজাত করণের মধ্যেই প্রতিষ্ঠানের সাফল্য নিহিত । রেমিকসমেটিক্সের রয়েছে এক দক্ষ বিক্রয় বাহিনী য়ারা বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিরলস পরিশ্রমেরমাধ্যমে (রেমি  পণ্য পৌঁছে দিচ্ছেন, রয়েছে ১২০ এর ও অধিক পরিবেশক । বর্তমানে আমাদের বিক্রয় বিভাগে ২০০ এর অধিক সদস্য রয়েছেন । বিক্রয় প্রবৃদ্ধি অর্জনে তাদের নিয়মিত প্রশিক্ষণ, প্রনােদনা প্রভৃতির ব্যবস্থা রয়েছে । রেমি  স্পট  ক্লিনার  ক্রিমের পাশাপাশি, রেমি ব্লাক রোজ পারফিউম, মিস্ট প্যাশন পারপেল পারফিউম, রেমি ট্যালকম পাউডার আজ ক্রেতা সন্তুষ্টি অর্জন করতে পেয়েছে ৷ শীতকালীন একাধিক পণ্য যেমন… (রমি চ্যাপস্টিক , রেমি  গ্লিসারিন , রেমি পমেড , আজ স্ব স্ব শ্রেণীতে
অপ্রতিদ্বন্দী । মুলত, সময় পোযোর্গী পণ্য উদ্ভাবন উৎপাদন, কঠোর মান নিয়ন্ত্রন এর দক্ষ মানবসম্পদ রেমি কসমেঢিক্সের চালিকাশক্তি । রেমি  কসমের্টিক্সের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাজধানী হোমিও ল্যাবরেটরি, সৃজন ইউনামী লব্র৷ল্যাবরেটরি  যাত্রা শুরু করেছে ২০০৬ সালে । মানসম্পন্ন ঔষধ উৎপাদনের মাধ্যমে স্বল্প সময়ে

চিকিৎসক মহলে প্রশংসিত হয়েছে আমাদের উৎপাদিত ঔষধ । অদূৱ ভবিষ্যতে আমাদের প্রক্রিয়াজাত
খাদ্য উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে ।